চিলমারীতে ধ্বসে পড়ছে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর

 

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি ঃঃ
ভাঙ্গন কবলিত চিলমারী। নদী ভাঙ্গনে সর্বস্বান্ত হাজারো মানুষ। হাজারো পরিবার সর্বস্বান্ত হয়ে আশ্রয় নিয়েছিল বাঁধে, সেটিও ছাড়তে হয় তাদের। আশ্রয়হারা মানুষের পাশে দাঁড়ান সরকার, হাতে নেন আশ্রয়ণ প্রকল্প। শত শত মানুষ ফিরে পায় একটি শান্তির নীড়। কিন্তু সেই শান্তির নীড় মৃত্যু ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সদ্য আশ্রয় নেয়া মানুষজনের। বৃষ্টির সাথে ধসে পড়তে শুরু করেছে চরফেসকা বাবদ হাতিয়া বকসী আশ্রয়ন প্রকল্পের ব্যারাক, ওয়াল ভেঙে যাচ্ছে। আশ্রয় হারিয়ে সদ্য আশ্রয় নেয়া পরিবারগুলো দিশাহারা।নজর নেই কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, চিলমারী উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর অধীনে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের তত্ত্বাবধানে আশ্রয়ণ প্রকল্প মাটি ভরাটের কাজ হয়। চর ফেসকা বাবদ হাতিয়া বকসী আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাটি ভরাট বাবদ প্রায় ৭শত টন গম বরাদ্দ দেয়া হয়। শুরু থেকেই মাটির ভরাট কাজেও নেয়া হয় অনিয়মের আশ্রয় ফলে বৃষ্টির সাথে সাথে বিভিন্ন স্থানে মাটির ধস দেখা দেয়। আর এ ধ্বসে পড়ায় শুরু হয়েছে সমলোচনার ঝড়। প্রশ্ন উঠেছে, এসব ঘর নির্মাণে নিম্ন মানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুবুর রহমান সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, সরেজমিন দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।