জামাতার হাতে প্রাণ গেল শ্বশুরের

 

মেহেরপুর প্রতিনিধি ঃঃ
মেহেরপুর সদর উপজেলার হরিরামপুর গ্রামের ছাগল ব্যবসায়ী তোফাজ্জল হোসেনকে হত্যার অভিযোগে লিটন হোসেন নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত লিটন একই উপজেলার তেরোঘরিয়া গ্রামের আসাদ আলী ছেলে ও নিহত তোফাজ্জেল হোসেনের দুঃসম্পর্কের জামাতা।

সোমবার দিবাগত রাতে মেহেরপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) অপু সরোয়ারের নেতৃত্বে পুলিশের একটিদল হরিরামপুর গ্রাম থেকে লিটনকে আটক করে।

পুলিশ সূত্র জানায়, লিটন কয়েক মাস পূর্বে থেকে তার শ্বশুর হরিরামপুর গ্রামের হাসমত আলীর বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করছিলেন। তিনি তোফাজ্জেল হোসেনের সাথে ছাগলের ব্যবসা করছিলেন। তোফাজ্জলের কাছে সব সময় মোটা অংকের অর্থ গচ্ছিত থাকতো। লিটন ওই টাকা নেয়ার জন্য রোববার দিবাগত রাতে চায়ের সাথে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে কৌশলে তোফাজ্জলকে খাইয়েছিলেন। এসময় তোফাজ্জেল অচেতন হন। এ সুযোগে তাকে গ্রামের পাশেই একটি মাঠে নিয়ে কুপিয়ে, চোখ উত্তোলন ও গলা কেটে হত্যা করেন। পরের দিন সোমবার সকালে মাঠের কৃষকরা তার ক্ষতবিক্ষত লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়