ঢাকা মহানগর পুলিশের দৃষ্টান্ত !

 

সংবাদ জমিন ডেস্ক ঃঃ
ঢাকার ভাটারা থানাধীন কোকাকোলা মোড় থেকে গাড়ি বিক্রির ১৮ লাখ টাকা নিয়ে রিকশায় চড়ে বাসায় ফিরছিলেন ব্যবসায়ী মো. ইমন। একই এলাকার ঢালীবাড়ী পৌঁছে রিকশা থেকে নেমে যান। কিন্তু টাকার ব্যাগটি রিকশা থেকে নিতে ভুলে যান। এরপর ইমন যখন বাসার গেটে পৌঁছান, তখন টাকার ব্যাগের কথা মনে পড়ে তাঁর। দ্রুত দৌঁড়ে গিয়ে খুঁজেও রিকশাচালককে পাননি তিনি। তারপর ইমন ভাটারা থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। ঘটনাটি গত ৮ মার্চ রাত সাড়ে ১০টার দিকে। জিডিতে ব্যবসায়ী বলেছেন, সবই তাঁর নিজের শো রুমের গাড়ি বিক্রির টাকা।

বুধবার বিকেলে এসব তথ্য জানিয়েছেন ভাটারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তারুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘জিডি করার পর থেকে আমরা পুরো এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ চেক করি। সেই ফুটেজে দেখা গেছে, ব্যবসায়ী রিকশা থেকে নামার সময় টাকার ব্যাগটি রিকশাতেই রেখে যান। ওই রিকশাচালকও জানতেন না সে কথা। চালক পুনরায় চালাতে শুরু করলে ব্যাগটি রিকশা থেকে পড়ে যায়। এরপর আরেকজন রিকশাচালক ব্যাগটি তুলে দেখেন, ভেতরে প্রচুর টাকা।’ওসি মোক্তারুজ্জামান, ‘তারপর টাকার ব্যাগটি নিয়ে ওই রিকশাচালক সোজা চলে যান। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আমরা মো. ইউনুস নামের ওই চালককে শনাক্ত করি। এরপর শুরু হয় অভিযান। ভাটারা এলাকার প্রায় প্রতিটি রিকশার গ্যারেজে আমরা অভিযান পরিচালনা করি। কিন্তু কোথাও তাঁকে পাওয়া যায়নি।’

‘‘এরপর গতকাল রাতে আমরা ১০০ ফিটের দিকে অভিযান পরিচালনা করি। সেখানে হঠাৎ মো. ইউনুসকে দেখা যায়। তখন তাঁর কাছে গিয়ে বলা হয়, আপনাকে আমরা খুঁজছি। এ কথা বলার সঙ্গে সঙ্গে ইউনুস বলেন, ‘আমার কাছে টাকা আছে। আমি মালিককে খুঁজছি। কিন্তু পাচ্ছি না।’ এরপর আমরা ইউনুসকে নিয়ে যথাযথ স্থানে যাই। সেখানে গেলে তাঁর হেফাজতে থাকা টাকাগুলো দেখা যায়।’’ যোগ করেন ওসি। মোক্তারুজ্জামান বলেন, ‘তারপর টাকাসহ ইউনুসকে থানায় নিয়ে আসা হয়। সে সময় টাকার মালিক উপস্থিত ছিলেন। তখন ইমন রিকশাচালককে ৫০ হাজার টাকা উপহার হিসেবে দেন। ইমনের বারিধারার জে ব্লকে একটি গাড়ির শো রুম রয়েছে।’