ধামরাইয়ে বিয়ে করতে তালবাহানা করায় প্রেমিকা জিহবা কেটে নিল প্রেমিকের

 

ধামরাই প্রতিনিধি ঃঃ
ঢাকার ধামরাইয়ে বিয়ে করতে তালবাহানা করায় প্রেমিকা জিহবা কেটে নিল প্রেমিকের। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফড়িঙ্গা গ্রামের শফিকুল ইসলামের বাড়িতে। এ ঘটনায় রাতে অভিযান চালিয়ে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ দুপুরে আসামি ৪ জনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা হল, ফরিঙ্গা গ্রামের ফজল হকের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪০), শফিকুল ইসলামের মেয়ে শারমিন (২২), শফিকুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৩৮) ও শফিকুল ইসলামের ছেলে ফারুক হোসেন (২০)। একই এলাকার মৃত কান্দু মিয়ার ছেলে সোহরাব (৬৫) কে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে থানা পুলিশ।

স্থানীয়রা জানায়, সাইফুর রহমানের সঙ্গে গ্রেপ্তারকৃত ২নং আসামি শারমিন আক্তারের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন সাইফুর। বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক হয় একাধিক বার। কিন্তু বিয়ে না করে দিনের পর দিন সময়ক্ষেপণ করতে থাকলে প্রেমিকা শারমিন ক্ষিপ্ত হয়ে পরিবারের সহযোগিতায় সাইফুলের উপর অমানবিক নির্যাতন চালায়, একপর্যায়ে জিহবা কেটে ফেলে প্রেমিক সাইফুরের।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক তন্ময় সাহা জানান, এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে আজ রোববার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আরো ১ আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।