প্রতারণার মহা সম্রাট বনে গিয়েছিলেন ডা: ঈশিতা

 

সংবাদ জমিন, অনলাইন ডেস্ক ঃঃ
প্রতারণার মহা সম্রাট বনে গিয়েছিলেন ডা: ঈশিতা। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদ, ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ, ইন্টারন্যাশনাল ইন্সপিরেশনাল ওমেন অ্যাওয়ার্ড, বছরের সেরা নারী বিজ্ঞানী, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে রিসার্চ অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড, ভারতের টেস্ট জেম অ্যাওয়ার্ড, থাইল্যান্ডের আউটস্ট্যান্ডিং সায়েন্টিস্ট অ্যান্ড রিসার্চার অ্যাওয়ার্ডসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন বলে প্রচার করতেন চিকিৎসক ইশরাত রফিক ঈশিতা (৩৪)। কিন্তু এর সবই ভুয়া। তিনি কোনও পুরস্কার অর্জন করেননি। সব সনদ নিজেই তৈরি করেছেন। মূলত প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাৎ ও খ্যাতি অর্জনের জন্যই এসব করেছেন তিনি।

একজন বেসরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে পাশ করা তিনি একজন ডাক্তার মাত্র। মিরপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চাকরি নিয়েছিলেন। কিন্তু সে চাকরি তার টেকসই হয়নি। অনৈতিক কাজের জন্য তার সে চাকরি চলে গেছে। তার এ কাজে সহযোগী হিসেবে কাজ করত শহিদুল ইসলাম দিদার। ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার দিদার তার প্রতারণার যত কাজ সে সহযোগী হিসেবে সব সময় পাশে থাকতেন। এসব তিনি করেছেন খ্যাতি আর অর্থ হাতিয়ে নেয়ার জন্য। করোনা মহামারীতে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিয়েছে বিপুল পরিমান অর্থ।র‌্যাব সূত্র প্রেসব্রিফং-এ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

র‌্যাব উভয়কে গ্রেফতার করে। ডা: ঈশিতাকে গ্রেফতারের সময় তার মিরপুর-১ বাসা থেকে ভুয়া আইডি কার্ড, ভুয়া ভিজিটিং কার্ড, ভুয়া সিল, ভুয়া সনদ, ভুয়া প্রত্যয়নপত্র, পাসপোর্ট, ল্যাপটপ, ইয়াবা, বিদেশি মদ ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদের দুটি ইউনিফর্ম, র‌্যাংক ব্যাচ উদ্ধার করে র‌্যাব।