বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির নেপথ্যে

 

সংবাদ জমিন, অর্থনৈতিক ডেস্ক ঃঃ
উত্তর কোরিয়ার হ্যাকাররা ২০১৬ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ১০০ কোটি ডলার হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করে। তারা অনেকাংশে সফল হয়। তবে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার আটকে যায় তাদের ছোটখাট ভুলে। এর ফলে প্রশ্ন সৃষ্টি হয়েছে, বিশ্বের দরিদ্রতম দেশের অন্যতম এই দেশটিতে অভিজাত সাইবার-অপরাধের মোকাবিলায় কিভাবে তাদের টিমকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। কিভাবে ওই হামলা চালানো হয়েছিল, বিবিসির এক দীর্ঘ প্রতিবেদনে তা তুলে ধরা হয়েছে। এতে বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি যাওয়া রিজার্ভের মধ্যে দেড় কোটি ডলার উদ্ধারে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। এতে বলা হয়, ওই সাইবার হামলা করা হয়েছিল কয়েকটি পর্যায়ে। প্রথমেই শুরু হয়েছিল হ্যাকিং কৌশল দিয়ে।

শেষ পর্যন্ত, হ্যাকারদের কিছু ভুল এবং দৈবক্রমে আট কোটি ১০ লাখ ডলারের বেশি অর্থ হ্যাকাররা সরাতে পারেনি। অল্পের জন্য আট হাজার কোটি ডলার রিজার্ভ হারানোর হাত থেকে বাংলাদেশ বেঁচে যায়। পরবর্তীতে এই হ্যাকিংয়ের মূল হোতা হিসেবে উত্তর কোরিয়ার হ্যাকার পার্ক জিন হিয়কের নাম জানা যায়। পার্ক জিন হিয়কের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮১ মিলিয়ন ডলার রিজার্ভ চুরি এবং ২০১৪ সালে সনি পিকচারস হ্যাক করার অভিযোগ রয়েছে।