ভারতে স্ত্রী ও ৩ সন্তানকে হত্যার পর গ্রেফতার হলো স্বামী

 

সংবাদ জমিন,অনলাইন ডেস্ক ঃঃ
অপরাধ তার স্বামীর সঙ্গমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়া। বারবার সঙ্গমের চেষ্টা করেছে স্বামী। প্রতিবারই প্রত্যাখ্যান করেছে সে। শেষপর্যন্ত ২৮ বছরের ডলিকে গুলিতে ঝাঁঝরা হতে হলো। ৩৫ বছর বয়স্ক স্বামী অবশ্য তাতেই থেমে থাকেনি। তিন সন্তানকে গঙ্গায় ছুড়ে ফেলে দেয় সে। পাঁচ বছরের সানিয়া, তিন বছরের বংশ ও দেড় বছরের অসমীতার আর কোনও খোঁজ মেলেনি। যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশের বাসেদি গ্রামের এই নৃশংস ঘটনার পর গ্রেপ্তার করা হয়েছে পাপ্পুকে।

জেরায় সে জানিয়েছে যে, গত ১৫ দিন ধরে সে স্ত্রীর সঙ্গে সঙ্গম করার চেষ্টা করে গেছে। কিন্তু স্ত্রী রাজি না হওয়ায় সে স্ত্রীকে গুলি করে মেরেছে। রাগের মাথায় সন্তানদের গঙ্গায় ছুড়ে ফেলেছে। উল্লেখযোগ্য, দশ বছর আগে পাপ্পুর দাদার সঙ্গে ডলির বিয়ে হয়েছিল। দাদার মৃত্যুর পর দেবর পাপ্পু বৌদি ডলিকে বিয়ে করে। বিশিষ্ট মনোবিদ ডা. অমরনাথ মল্লিকের মতে, অবদমিত কাম মানুষকে অনেক সময় পশুতে পরিণত করে। সেই সময় সে হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে পড়ে। তার থেকেই সম্ভবত এই বিপত্তি।