মানিকগঞ্জবাসীর জন্য কাজ করে আমি ধন্য : রিফাত রহমান শামীম

 

সংবাদ জমিন, অনলাইন ডেস্ক ঃঃ
দিনটি ছিলো ২০১৮ সালের ১৬ই মার্চ,যেদিন আমি মানিকগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করি।দায়িত্বের সাথে ভার শব্দটি যুক্ত থাকায় সেটি আমি খুবই সচেতনতার সাথেই কাঁধে বহন করার চেষ্টা করেছি পুরোটা চাকুরীকাল।হৃদয়ের স্বচ্ছতার জায়গা থেকে খুব স্পষ্ট করেই বলতে পারি,মানিকগঞ্জবাসীর সেবায় নুন্যতম কুন্ঠাবোধ আমার নিকট কখনোই স্থান করে নিতে পারেনি।আমি সফলতার কথা বলছিনা,বলছি আপনাদের সকলের ভালোবাসার বিপরীতে ফিরতি ভালোবাসা দেয়ার কথা।দায়িত্বের ভারকে ভালোবাসায় রূপান্তর করে আপনাদের মাঝে কেটে গেলো আমার ৩ বছর ৪ মাস!

যোগদান পরবর্তী সময়ে জাতীয় সকল গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টে আমি আপনাদের পাশে থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।সকল প্রাকৃতিক দূর্যোগ,বিশেষ করে ২০১৯-২০২০ এর দীর্ঘস্থায়ী বন্যা এবং মার্চ/২০১৯ হতে আজ অবধি চলমান করোনা মহামারীতে আপনাদের পাশে থাকতে পারাটা আমার জন্য অত্যন্ত সৌভাগ্যের।সহযোগিতা ও পেশাগত দায়িত্ববোধ থেকে সকল থানা,ফাঁড়ি,তদন্তকেন্দ্র,ট্রাফিক অফিস,সার্কেল অফিস এবং পুলিশ অফিসে সেবা প্রাপ্তির মানকে একটি স্ট্যান্ডার্ডে নেয়ার চেষ্টা করেছি সবসময়।বদৌলতে জুন/২০২১ এ এসে হরিরামপুর এবং দৌলতপুর থানায় মূলতবি মামলার সংখ্যা দাঁড়ায় শূন্যের কোটায়।

কৃতজ্ঞতা প্রথমত তাদের প্রতি,যাঁদের সহযোগীতায় স্বাচ্ছন্দ্যে কেটেছে আমার পুরো দায়িত্ব কাল। শ্রদ্ধা,ভালোবাসা ও ভালোলাগা রইলো সেইসব সুন্দর মনের মানিকগঞ্জবাসীর প্রতি। সহযোগীতা পেয়েছি মানিকগঞ্জ জেলার সকল স্তরের রাজনৈতিক নেত্রীবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের নিকট হতে।সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়া সকল জনপ্রতিনিধি ও রাজনীতিবিদদের প্রতি রইলো আমার আন্তরিক শুভকামনা এবং কৃতজ্ঞতা। শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা মানিকগঞ্জ জেলার দুইজন সম্মানিত সংসদ সদস্য ও মাননীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর প্রতি,যাদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহায়তা আমার দায়িত্ব পালনের পথকে করেছে মসৃন।

কৃতজ্ঞতা জানাই জেলার বিচার বিভাগ,জেলা প্রশাসন, চিকিৎসা বিভাগ,এনএসআই,এলজিইডি,পিডব্লিউডি,বিআইডব্লিউটিসি,রোডস এন্ড হাইওয়েসহ সকল সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সকল সদস্যদের প্রতি।আরো কৃতজ্ঞতা জানাই,জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ সকল সদস্য,জেলা কমুউনিটি পুলিশিং ফোরামের সকল সদস্য এবং স্পেশাল ধন্যবাদ জেলা প্রেসক্লাবের সকল সাংবাদিক ভাইদের প্রতি যাদের সহযোগিতা ছিলো চোখে পড়ার মত।

ধন্যবাদ ও ভালোবাসা রইলো আমার সকল প্রিয় সহকর্মীদের প্রতি যারা আমার সমস্ত অর্জন ও ব্যর্থতার সঙ্গী।সুন্দর ও শুভ কিছুই থাকুক আমার প্রিয় সহকর্মীদের জন্য। মানিকগঞ্জ টেনিস ক্লাবের সকল সদস্য যেন আমার পরিবার!ভুলতে চাইলে নিজেকে অস্বীকার করা হয়।স্মরণ করছি টেনিস ক্লাবের সকল সদস্যকে।ভালোবাসার ছন্দময় বর্ষন থাকুক এই পরিবারের উপর। কৃতজ্ঞতা ভরে স্মরণ করছি মানিকগঞ্জ পূজা উদযাপন কমিটির সকল সম্মানিত সদস্যকে,যাদের সবসময়ের ঐকান্তিক ও আন্তরিক সহযোগিতা মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশকে ঋণী করেছে।তাদের আগামীর পথ চলা হোক প্রশস্ত ও সমৃদ্ধ।

ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা মাননীয় রেঞ্জ ডিআইজি স্যারের প্রতি যাঁর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ দিকনির্দেশনা দায়িত্ব পালন প্রক্রিয়াকে করেছে পরিমার্জিত ও সুন্দর।অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে কৃতজ্ঞতা বাংলাদেশ পুলিশের মাননীয় আইজিপি স্যারের প্রতি,যাঁর নির্দেশে জেলা পুলিশ মানিকগঞ্জকে সুনিয়ন্ত্রিত উপায়ে পরিচালনা করার সর্বোত্তম চেষ্টা করেছি।আরো স্মরণ করছি আমার প্রিয় সহধর্মিণীসহ পরিবারের সকল সদস্য,বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ীদের,যাদের অনুপ্রেরণা সবসময় আমাকে ভালো কাজে উৎসাহিত করেছে। সর্বশেষ প্রশংসা ও কৃতজ্ঞতা মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি,যিনি সুস্থ দেহ ও সুস্থ মস্তিষ্কে নিরাপদে দায়িত্ব পালন করার তৌফিক দান করেছেন।আলহামদুলিল্লাহ। সকলের প্রতি সালাম,শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা রইলো।