মানিকগঞ্জের সিংগাইরে স্ত্রীর সাথে স্বামীর প্রতারণা

 

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ঃঃ
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে স্ত্রীর সাথে স্বামীর প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। পালিয়ে বেড়াচ্ছে প্রতারক ঐ স্বামী।

জানা যায়, বিগত ২০২০ সালের ৩০ জানুয়ারী উপজেলার বায়রা ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের (বর্তমান ঠিকানা : হোল্ডিং নং-ই-২৮/১, গেন্ডা, সাভার, ঢাকা) আয়নালের পুত্র আবু বকর সিদ্দিকের সাথে একই উপজেলার চারিগ্রাম ইউনিয়নের দাশেরহাটি গ্রামের মজিবরের কন্যা শামছুন্নাহার এর ২ লক্ষ টাকা দেনমোহর ধার্য করে আদালতে বিয়ে হয়। বিয়ের পর প্রতারক স্বামী সিদ্দিক স্ত্রী শামছুন্নাহার এর নামে জমি ক্রয় করার কথা বলে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। স্ত্রীর নামে জমি ক্রয় করে না দেয়ায় সংসারে বিবাদ শুরু হলে ১০ লক্ষ টাকা ফেরত দেবে বলে স্ট্যাম্পে লিখিত অঙ্গীকার প্রদান করে প্রতারক স্বামী। বিবাহের পর হতে স্ত্রীর কোন প্রকার ভরণ-পোষন সে দেয়নি। ভরণ-পোষন দাবি করলে স্ত্রী শামছুন্নাহারকে সে মারপিট করত। প্রতারকের ফুফাত ভাই অন্তর, পিতা আয়নাল হক ও ফুফুর কু-পরামর্শে স্ত্রীর ভরণ-পোষন না দিয়ে বেধড়ক মারপিট অব্যাহত রাখে।

বিগত সালের ১০ অক্টোবর স্ত্রীর বাপের বাড়ি থেকে নগদ ২ লক্ষ টাকা, ৫ ভরি স্বর্ণসহ বাড়ির দলিল, স্ট্যাম্প কাগজ, তার দেয়া অঙ্গীকার নামা, কোর্ট ম্যারিজের কাগজ ও ভিসা লাগানো একটি কাগজ নিয়ে সিদ্দিক গা-ঢাকা দেয়। এরপর স্ত্রী তার স্বামীকে বার বার ফোন দিলে বিভিন্ন গালিগালাজ ও বড় ধরণের ক্ষতি করবে বলে হুমকি প্রদান করে। উপায়ন্তর না পেয়ে শামছুন্নাহার বাদী হয়ে বিগত সালের ৭ ডিসেম্বর স্বামী আবু বকর সিদ্দিককে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। বাদী শামছুন্নাহার জানান, আমি স্বামী কর্তৃক হয়রানি, নির্যাতন ও প্রতারণার শিকার হয়েছি। আমি এর ন্যায় বিচার চাই। সিদ্দিকের সাথে এ ব্যাপারে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।পুলিশ জানায়, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।